দিনাজপুরে বড় ভাইয়ের হাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের

দিনাজপুরে বড় ভাইয়ের হাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের

অপরাধ ও বিচার দিনাজপুর প্রতিদিন

দিনাজপুরে বড় ভাইয়ের হাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জমি বিরোধের জেরে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রকে (৪৫) হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার শ্বরপুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে তিনি গ্রামের হরিস চন্দ্রের ছেলে। এ ঘটনার পর থেকে বড় ভাই শ্যামল চন্দ্র (৪৭) পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মায়ের নামে থাকা জমির জন্য দুই ভাইয়ের মধ্যে রিরোধ চলে আসছিলো। শুক্রবার সকাল তাদের মধ্যে ওই জমি নিয়ে আবারও বিরোধ সৃষ্টি হয়। এসময় বড়ভাই শ্যামল চন্দ্র ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রের বুকে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে আঘাত করেন। এতে রাখাল চন্দ্র মাটিতে পড়ে যান। রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই রাখাল চন্দ্রের মৃত্যু হয়।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান,ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি।

সূত্রঃ Jago News

Dinajpur Today

দিনাজপুরে বড় ভাইয়ের হাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জমি বিরোধের জেরে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রকে (৪৫) হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার শ্বরপুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে তিনি গ্রামের হরিস চন্দ্রের ছেলে। এ ঘটনার পর থেকে বড় ভাই শ্যামল চন্দ্র (৪৭) পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মায়ের নামে থাকা জমির জন্য দুই ভাইয়ের মধ্যে রিরোধ চলে আসছিলো। শুক্রবার সকাল তাদের মধ্যে ওই জমি নিয়ে আবারও বিরোধ সৃষ্টি হয়। এসময় বড়ভাই শ্যামল চন্দ্র ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রের বুকে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে আঘাত করেন। এতে রাখাল চন্দ্র মাটিতে পড়ে যান। রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই রাখাল চন্দ্রের মৃত্যু হয়।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান,ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি।

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জমি বিরোধের জেরে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রকে (৪৫) হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার শ্বরপুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে তিনি গ্রামের হরিস চন্দ্রের ছেলে। এ ঘটনার পর থেকে বড় ভাই শ্যামল চন্দ্র (৪৭) পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মায়ের নামে থাকা জমির জন্য দুই ভাইয়ের মধ্যে রিরোধ চলে আসছিলো। শুক্রবার সকাল তাদের মধ্যে ওই জমি নিয়ে আবারও বিরোধ সৃষ্টি হয়। এসময় বড়ভাই শ্যামল চন্দ্র ছোট ভাই রাখাল চন্দ্রের বুকে স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে আঘাত করেন। এতে রাখাল চন্দ্র মাটিতে পড়ে যান। রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই রাখাল চন্দ্রের মৃত্যু হয়।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান,ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.