রামসাগর দিনাজপুর: বাংলাদেশের বৃহত্তম মানবসৃষ্ট দিঘি

রামসাগর দিনাজপুর বাংলাদেশের বৃহত্তম মানবসৃষ্ট দিঘি

দর্শনীয় স্থান দিনাজপুর জেলা

রামসাগর দিনাজপুর বাংলাদেশের বৃহত্তম মানবসৃষ্ট দিঘি

রামসাগর বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের রংপুর বিভাগের দিনাজপুর জেলার তাজপুর গ্রামে অবস্থিত একটি বিশাল মানবসৃষ্ট দিঘি। রামসাগরকে বাংলাদেশের বৃহত্তম মানবসৃষ্ট দীঘি হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

রামসাগর দিঘির ইতিহাস:

ঐতিহাসিকদের মতে, দিনাজপুরের বিখ্যাত রাজা রামনাথ (রাজত্বকাল: ১৭২২-১৭৬০ খ্রিষ্টাব্দ) পলাশীর যুদ্ধের আগে (১৭৫০-১৭৫৫ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে) এই রামসাগর দিঘি খনন করেছিলেন। তারই নামানুসারে এর নামকরণ করা হয় রামসাগর। দিঘিটি খনন করতে তৎকালীন প্রায় ৩০,০০০ টাকা এবং ১৫,০০,০০০ শ্রমিকের প্রয়োজন হয়েছিল।

রামসাগর দিঘির বৈশিষ্ট্য:

রামসাগরের আয়তন ৪,৩৭,৪৯২ বর্গমিটার, দৈর্ঘ্য ১,০৩১ মিটার ও প্রস্থ ৩৬৪ মিটার। গভীরতা গড়ে প্রায় ১০ মিটার। পাড়ের উচ্চতা ১৩.৫ মিটার। দীঘিটির পশ্চিম পাড়ের মধ্যখানে একটি ঘাট ছিল যার কিছু অবশিষ্ট এখনও রয়েছে। বিভিন্ন আকৃতির বেলেপাথর স্ল্যাব দ্বারা নির্মিত ঘাটটির দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ ছিল যথাক্রমে ৪৫.৮ মিটার এবং ১৮.৩ মিটার। দীঘিটির পাড়গুলো প্রতিটি ১০.৭৫ মিটার উঁচু।

রামসাগর দিঘির সৌন্দর্য:

রামসাগর দিঘির সৌন্দর্য অতুলনীয়। দিঘিটির চারপাশের সবুজ পাহাড় ও টিলা রামসাগরের সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। দিঘির পানি সবসময় পরিষ্কার ও স্বচ্ছ থাকে। দিঘির পানিতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, জলজ উদ্ভিদ ও প্রাণী বাস করে। দিঘির ধারে বসে দিঘির মনোরম দৃশ্য উপভোগ করা এক অসাধারণ অনুভূতি।

রামসাগর দিঘি একটি জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য। প্রতিবছর অসংখ্য দেশী-বিদেশী পর্যটক রামসাগর দিঘি দেখতে আসেন।

রামসাগর দিঘির সংরক্ষণ:

রামসাগর দিঘি বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক ও প্রাকৃতিক সম্পদ। দিঘিটির সংরক্ষণের জন্য সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দিঘিটিকে একটি জাতীয় উদ্যান হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। দিঘিটির চারপাশে একটি সুন্দর পার্ক নির্মাণ করা হয়েছে। দিঘিটির পানি দূষণ রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

রামসাগর দিঘি বাংলাদেশের একটি গর্বের বিষয়। দিঘিটির সংরক্ষণের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এটিকে সুরক্ষিত রাখা আমাদের সকলের দায়িত্ব।

Read more: দিনাজপুরের ঐতিয্যবাহী মুগ ডালের পাপড়

For more updates join “Dinajpur News- -দিনাজপুর খবর ” Facebook Group and follow “Dinajpur Today” Facebook Page. Thank You.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *