রোহিঙ্গা বলে ডাকায় বন্ধুকে পিটিয়ে হত্যা

রোহিঙ্গা বলে ডাকায় বন্ধুকে পিটিয়ে হত্যা

অপরাধ ও বিচার দিনাজপুর প্রতিদিন দিনাজপুরের খবর

রোহিঙ্গা বলে ডাকায় বন্ধুকে পিটিয়ে হত্যা

দিনাজপুরের হাকিমপুরে ‘রোহিঙ্গা’ বলে ডাকায় এক বন্ধুকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন আরেক বন্ধু।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত ইলিয়াস (৩৬) হাকিমপুর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের মৃত মহসিন আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইলিয়াস পেশায় মাইক্রোবাসচালক ছিলেন। বৃহস্পতিবার বাড়ি থেকে হিলিতে যাওয়ার পথে পাশের গ্রামের (বৈগ্রাম) আক্তারুজ্জামান নামে এক বন্ধুকে ঠাট্টা করে রোহিঙ্গা বলে ডাক দেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হন।

স্থানীয় কয়েকজন যুবকসহ মাইক্রোস্ট্যান্ডে গিয়ে ইলিয়াসকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন আক্তারুজ্জামান। এতে ইলিয়াস গুরুতর জখম হন। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসক।

কিন্তু অর্থের অভাবে ঢাকায় না নিয়ে দিনাজপুরে পার্শ্ববর্তী বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে তিনি মারা যান।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, ‘তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক বন্ধু আরেক বন্ধুকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। এ বিষয়ে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

 

Dinajpur Today

শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত ইলিয়াস (৩৬) হাকিমপুর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের মৃত মহসিন আলীর ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.